Fantasy Hotel & Resort – সেন্টমার্টিনের অন্যতম আধুনিক রিসোর্ট

নীল দরিয়ার বুকে জেগে উঠা অনিন্দ্য সুন্দর দ্বীপ সেন্টমার্টিন ভ্রমণকে পর্যটকদের জন্য আরো বেশি উপভোগ্য ও স্বাচ্ছন্দ্যময় করে তুলতে আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন  “ফ্যান্টাসি হোটেল এন্ড রিসোর্ট” এর নাম প্রথম দিকে থাকে।

দু’মিনিট হেঁটেই সমুদ্রস্নানে যাওয়া, সৈকতপাড়ে দাঁড়িয়ে সাগর কোলে সূর্যের ডুবন্ত রুপ দেখা,সুনির্মল বাতাসে পরম শান্তিতে বসে ডাবের পানি দিয়ে গলা ভেজানো,খুব কাছে থেকে মনোরম পরিবেশ অবলোকন করা অনেকটা স্বপ্নের মতো।আর সেই স্বপ্নের বাস্তবায়নে সারথির মতো আছে শিপ পোর্টের সন্নিকটের অনবদ্য এই রিসোর্টটি।

নীলাম্বুর মধ্যিখানের এই দ্বীপে ভ্রমণপিয়াসীরা অত্যাধুনিক সব সুবিধা ভোগ করতে পারেন এই রিসোর্টে। সূর্যের আলো পুজি করে সার্বক্ষণিক বিদ্যুৎ ব্যবস্থার পাশাপাশি আছে বিনামূল্যে ইন্টারনেট সেবাও। রিসোর্টে ঢুকেই সবুজের ছায়ায় ক্লান্ত পথিকও পরিশ্রান্ত হয়ে উঠবে,দৃষ্টিনন্দন বাগানের রুপে মুগ্ধ হবে।

সুসজ্জিত  ও পরিবেশবান্ধব তিন ধরণের শতাধিক রুমের মধ্য থেকে অতিথিরা নিজের সাধ্যের মধ্যে পছন্দমতো রুমে থাকতে পারে।এই রিসোর্টের সুপ্রশস্ত  লাক্সারি  রুমগুলো সেন্টমার্টিনের অন্যতম সেরা। চাইলে এখানে ব্যাক্তিগত “ভিআইপি লাউঞ্জ” সুবিধাও ভোগ করা যাবে।হোটেলের ছাদে রয়েছে প্রিমিয়াম তাবুর ব্যবস্থা যাতে পর্যটকরা খোলা আকাশের নিচে তারা গুণে গুণে সমুদ্রের গর্জনে কান পেতে থাকতে পারেন।

মালিক কতৃপক্ষ অতিথিদের নিরাপত্তার ব্যাপারে বেশ সচেতন তাই আনুষাঙ্গিক সুরক্ষা সরঞ্জামের পাশাপাশি এখানে রয়েছে ইলেক্ট্রিক ডোর লক সার্ভিস, ফায়ার এন্ড স্মোক ডিটেক্টর, ওয়াটার স্প্রিংকলার ও সার্বক্ষণিক সিসিটিভির ব্যবস্থা।

অতিথিদেরকে লোভনীয় সব খাবার উপহার দেয়ার জন্য রয়েছে ৩০০ আসনবিশিষ্ট নিজস্ব রেস্টুরেন্ট “Sea Salt”। এখানে সমুদ্রের তাজা মাছের হরেক পদ, শুটকি, ভর্তা প্রভৃতির সাথে ভারতীয়,থাই,চাইনিজ,ইউরোপিয়ান খাবারের পসরাও সাজানো থাকে।

চা-কফি -জুস প্রভৃতি পান করে পরিতৃপ্ত হতে আছে আলাদা ক্যাফে ও জুস বার। খোলা মাঠে যেকোনো পার্টির আয়োজন করা যাবে রিসোর্টের লবি লাউঞ্জে। রাতে মুক্ত বাতাসে ”বারবিকিউ” এর পাশাপাশি রয়েছে ” ক্যান্ডল লাইট” ডিনারের সুব্যবস্থাও।

বাচ্চারা যাতে অনাবিল আনন্দে থাকতে পারে সেজন্য আছে  খেলাধুলার এখানে আছে।রিসোর্টটির মালিক ও কর্মচারীদের আতিথেয়তায় মুগ্ধ হবে যে কেউ।তাদের যত্নশীল আচরণ ও সুবিধার সহজপ্রাপ্যতা পর্যটকদের জন্য সোনায় সোহাগা।

নারিকেল জিঞ্জিরার অনির্বচনীয়সৌন্দর্য্য উপভোগ করার পাশাপাশি ব্যস্তজীবন ছেড়ে প্রকৃতির কোলে মনোরম পরিবেশে দিন কয়েক শান্তির পরশে থাকার জন্য “ফ্যান্টাসি হোটেল ও রিসোর্ট” এক চমৎকার স্থান।

Share with your beloved

মন্তব্য করুন